• শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ০৪:৪১ পূর্বাহ্ন
  • [gtranslate]
শীর্ষ সংবাদ
জেন্ডার সংবেদনশীল প্রতিবেদনে ডেমোক্রেসি ইন্টারন্যাশনালের পুরস্কার পেলেন ৩ সাংবাদিক এক্সরে রেজিস্ট্রারের হাতের লেখা স্পষ্ট করতে বললেন ঔষধাগারের পরিচালক রাজশাহীতে নাগরিক সমস্যা সমাধানে মাল্টি-পার্টি এ্যাডভোকেসি ফোরামের গোলটেবিল বৈঠক সংসদে অংশগ্রহণ বৃদ্ধিতে নারী এমপিদের বিশেষ আইন প্রণয়নের আহ্বান প্রশ্ন শুনেই রেগে বেফাঁস মন্তব্য, সাংবাদিকদের তোপের মুখে রাজশাহী-১ আসনের এমপি ফারুক চৌধুরী  রাজশাহীর পবায় ফারুক, মোহনপুরে আফজাল হলেন উপজেলা চেয়ারম্যান রাজশাহীতে শ্বশুরবাড়ি থেকে ১০ আগ্নেয়াস্ত্রসহ জামাই গ্রেফতার দেশে কোন রাজনৈতিক মামলা হয় না: অ্যাটর্নি জেনারেল ইউপি চেয়ারম্যান থেকে উপজেলা চেয়ারম্যান হলেন বেলাল উদ্দিন সোহেল রাজশাহীর তানোরে ময়না, গোদাগাড়িতে সোহেল চেয়ারম্যান নির্বাচিত

অটোরিকশা চালক হলেন পৌর কাউন্সিলর

Reporter Name / ২২৮ Time View
Update : মঙ্গলবার, ১৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি : চায়ের দোকানি কিংবা দিনমজুর থেকে ব্যাপক জনপ্রিয়তা নিয়ে নির্বাচনে লড়াই করে জনপ্রতিনিধি হওয়ার গল্প সিনেমা-নাটক কিংবা বিজ্ঞাপনচিত্রে দেখা মেলে। কিন্তু বাস্তবে এমনটাই ঘটেছে চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে। এতে একজন অটোরিকশা চালক বর্তমান কাউন্সিলরসহ ছয় প্রতিদ্বন্দ্বীকে পরাজিত করে কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছেন। শুধু তাই নয়, নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বীর সঙ্গে তার ভোটের ব্যবধানও ছিল ৩০৮। ১৪ ফেব্রুয়ারির নির্বাচনে তাক লাগানো এই কাউন্সিলর হলেন রাজু আহমেদ রাজন। নির্বাচনে তিনি উটপাখি প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করেন।

শুধু অর্থ দিয়েই নয়, সাধারণভাবে চলাফেরা করেও জনসেবা দিয়ে যে জনপ্রতিনিধি হওয়া যায়Ñ রাজনই তার উৎকৃষ্ট উদাহরণ। বৃদ্ধ বাবা-মায়ের সংসারে তিন ভাইয়ের সবার ছোট তিনি। অটোচালক হলেও রাজন উচ্চমাধ্যমিক পর্যন্ত লেখাপড়া করেছেন। ২০০৬ সালে ছত্রাজিতপুর উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি ও ২০০৮ সালে রাণীহাটি ডিগ্রি কলেজ থেকে এসএসসি পাস করেন তিনি। সংসারের হাল ধরতেই আর লেখাপড়া এগিয়ে নিতে পারেননি রাজন।

বিভিন্ন সময়ে বিপদে-আপদে এলাকার মানুষের প্রয়োজনে ছুটে যেতেন নবনির্বাচিত কাউন্সিলর রাজন। লোকজনকে সাধ্যমতো সহায়তার হাত বাড়িয়ে দিতেন। শিবগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে সাত নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে প্রার্থী হতে অনুরোধ করেন এলাকাবাসী। তাদের এই অনুরোধ উপেক্ষা করতে পারেননি রাজন। দাঁড়িয়ে যান নির্বাচনে। তার নির্বাচনী সব ধরনের খরচ এলাকাবাসী ও স্থানীয় অটোরিকশা চালকরা বহন করেন। তারা নিজ তাগিদে দিনরাত পরিশ্রম করে রাজনের পক্ষে ব্যাপক প্রচার-প্রচারণা চালান। এসব প্রচারণায় ভোটারদের কাছে রাজনের মহানুভবতার কথা তুলে ধরেন তারা। তাই তো ১৪ ফেব্রুয়ারির ভালবাসা দিবসে জনতার ভালবাসা নিয়ে অতিসাধারণ রাজন কাউন্সিলর নির্বাচিত হন।

নির্বাচিত হওয়ার পর অনুভূতি জানতে চাইলে রাজন জানান, জনতার ভালবাসাই তার মূল চালিকা শক্তি। জনগণ যে ভালবাসা দিয়েছেন তার যথাযথ মর্যাদা রাখব। তার এলাকার প্রধান সমস্যা কী জানতে চাইলে তিনি জানান, মাদকই তার নির্বাচনী এলাকার মূল সমস্যা। এলাকার তরুণ সমাজ দিন দিন মাদকের জালে জড়িয়ে পড়ছে। শপথ গ্রহণের পর এলাকা থেকে মাদক নির্মূলই হবে তার প্রথম কাজ।

তিনি আরও বলেন, নবনির্বাচিত মেয়রও তার ওয়ার্ডের বাসিন্দা। সেহেতু তার সার্বিক সহায়তা নিয়ে এলাকা থেকে মাদকসহ সব ধরনের অসামাজিক কার্যকলাপের মূলোৎপাটন করা সহজ হবে।

প্রসঙ্গত, ১৪ ফেব্রুয়ারি চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে ৭ নং ওয়ার্ডে ৭৭৩ ভোট পেয়ে ডালিম প্রতীক নিয়ে নির্বাচিত হন রাজু আহমেদ রাজন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী উটপাখি প্রতীকে লিটন আলী পান ৪৬৫ ভোট। বর্তমান কাউন্সিলর শহীদুল ইসলাম বাবু ব্রিজ প্রতীক নিয়ে ৩৩৫ ভোট পেয়ে তৃতীয় হন। ওয়ার্ডটিতে মোট ভোটার সংখ্যা ৩৫৪৭ জন। নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী সৈয়দ মনিরুল ইসলাম মেয়র নির্বাচিত হন।

আরবিসি/১৬ ফেব্রুয়ারি/ রোজি


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category